সংযুক্ত আরব আমিরাতের আলআইন সিটিতে ক’রোনাভা’ইরাসেে আক্রা’ন্ত হয়ে মাত্র ১৭ দিনের ব্যবধানে বাংলাদেশি দুই ভাইয়ের মৃ’ত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে গত ১৯ এপ্রিল যার মৃ’ত্যু হয় তার নাম বেদারুল ইসলাম। ৬ মে তার ছোট ভাই শাহ আলম মা’রা যান।তারা চট্টগ্রাম জে’লার ফটিকছড়ি উপজে’লার ধর্মপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের নূর আলি টেন্ডল বাড়ির মৃ’ত ডা. শামসুল আলমের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুত্র। এখন পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতে দেশটির নাগরিক ও প্রবাসীসহ ক’রোনাভা’ইরাসেে মোট আক্রা’ন্তের সংখ্যা ১৫,৭৩৮ জন। এর মধ্যে মা’রা গেছেন ১৫৭ জন।

 

আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩,৩৫৯ জন।এদিকে ক’রোনাভা’ইরাসেের কারণে দেশটিতে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছেন বাংলাদেশ স’রকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশ থেকে পাঠানো এসব খাদ্যসামগ্রী বাংলাদেশ মিশনের তত্ত্বাবধানে প্রবাসীদের মাঝে বিতরণ করছে কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠন ও বাংলাদেশ সমিতি।

 

 

 

অপরদিকে ক’রোনা পজিটিভ পাকিস্তানিদের ফেরত পাঠিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। কয়েকশ প্রবাসী পাকিস্তানি দেশে ফিরে আসার পর পরীক্ষায় ক’রোনা শনাক্ত হয়েছে। পাকিস্তানের স’রকারি কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।তবে আমিরাত স’রকার এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, ফেরত পাঠানোর আগে প্রত্যেকের ক’রোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে যারা ক’রোনা পজিটিভ হয়েছেন তাদের ভ্রমণের অনুমতি দেয়া হয়নি।-জাগো নিউজ

 

ক’রোনাভা’ইরাসেের উপসর্গ থাকায় স্ত্রী-স’ন্তান ঘরে ঢু’কতে দেননি। তাই আশ্রয় নেন বোনের বাড়িতে। অঃপর সেখানেই মৃ’ত্যু হয় গার্মেন্টস কর্মীর! তিনি কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজে’লার সুন্দলপুর ইউনিয়নের মুদাফর্দি গ্রামের নজরুল ইসলাম (৫৫)। মৃ’ত্যু হয় একই উপজে’লার বোনের বাড়ি বারপাড়া ইউনিয়নের বারইকান্দি গ্রামে। বুধবার বিকালে তাকে দা’ফন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here