ঘুর্নিঝড় ”বুলবুল“ এর তান্ডবে স্বরূপকাঠিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রোববার বেলা ১২ টায় শুরু হয়ে ঘন্টাব্যাপী ওই ঘুর্ণিঝড়ে শত শত গাছপালা পড়ে কাঁচা ও আধাপাকা পাঁচ শতাধিক ঘরবাড়ী বিধ্বস্ত হয়েছে। বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে সকল ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা। লন্ডভন্ড হয়ে গেছে বিদ্যুত লাইন। কোন মানুষ মারা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। তবে অন্তত অর্ধশত জন কমবেশী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত হরিহরকাঠি গ্রামের শাহরিয়া, চান মিয়া, সুটিয়াকাঠির রীনা বেগম, বরছাকাঠি গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে হাসান ও মেয়ে মাহিমাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ওই ঘুর্ণিঝড়ে আমন ধানসহ রবি শস্যের ব্যপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার আব্দুল্লাহ আল মামুন বাবু ।

ঘুর্নিঝড় বুলবুল এর প্রভাবে শুক্রবার সকাল থেকে ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত ছিল। শনিবার সন্ধ্যা থেকে রাতভর মুসলধারে বৃষ্টি পড়ে। রোববার সকাল থেকে বৃষ্টির সাথে দমকা হাওয়া বইতে থাকে এবং দুপুরে শুরু হয় তান্ডব। গতকাল সোমবার বেলা ১১ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গাছপড়ে থাকায় স্বরূপকাঠি- বরিশাল সড়কের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান এ পর্যন্ত পাঁচজন গুরতর আহত হওয়া ছাড়া আর কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তিনি জানান, দুর্যোগের তাৎক্ষনিক প্রয়োজন মেটানোর জন্য ১ লাখ টাকা ও ২৫ মে.টন চাল বরাদ্ধ পাওয়া গেছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here