বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি)“রোহিঙ্গা সংকট: ঐতিহাসিক শেকড় সন্ধান ও সমকালীন বাস্তবতা”শীর্ষক সেমিনারঅনুষ্ঠিত হয়েছে । বৃহষ্পতিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবনানন্দ দাশ কনফারেন্স কমপ্লেক্সেবিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও সভ্যতা বিভাগের উদ্যোগে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও সভ্যতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল বাতেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য (দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ও জন-ইতিহাস চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক ড. মেসবাহ কামাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিক অনুষদের ডিন এবং ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোঃ মুহসিন উদ্দীন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, শিক্ষকমন্ডলীসহ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শুরুতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (দায়িত্বপ্রাপ্ত ) অধ্যাপক ড.এ কে এম মাহবুব হাসান রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে বলেন,বর্তমান রোহিঙ্গা সমস্যা একটি বড় সমস্যা যা দেশের অর্থনীতির উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলছে এবং এই সমস্যা নিরোসন করতে না পারলে দেশের ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে ।বর্তমান সরকার এই রোহিঙ্গা সমস্যা নিরোসন করার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে যা প্রশংসার দাবিদার।

প্রধান বক্তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড.মেসবাহ কামাল বলেন,রোহিঙ্গা সমস্যা পৃথিবীর একটি বড় সমস্যা।কারণ ১৮লক্ষ রোহিঙ্গা বিভিন্ন দেশে বিদ্যমান তার মধ্যে বাংলাদেশে ১১-১২ লক্ষ রোহিঙ্গা অবস্থান করছে।রোহিঙ্গারা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং তাদের যে নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছিলো মায়ানমারে, সেটি পরে প্রত্যাখ্যান করে তাদেরকে বিতাড়িত করার জন্য হত্যা,ধর্ষণ,ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন নির্যাতন করে আসছে। তিনি আরও বলেন,মায়ানমার সরকারের উদ্দেশ্য সংখ্যালঘু (অধিকাংশ মুসলিম) রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করে ভূমি দখল করা। পাকিস্তান যেমন আমাদের উপর খুন,ধর্ষণ ও নির্যাতন চালাতো তারা ভূমি দখল করার জন্য ঠিক তেমনি রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন করেছে।তিনি বলেন একটি দেশে নানা জাতি,ধর্মের মানুষ বসবাস করতেই পারে তাতে সাম্প্রদায়িকতার স্থান দেওয়া ঠিক না,অসম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে সমান অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।তিনি সকল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সকল সমস্যা নিরোসন করার জন্য ছাত্রদের গবেষণা ও সচেতন হতে হবে তাহলে সমস্যার সমাধান করার প্রত্যয় গ্রহণ করা যাবে। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান ড.মুহাম্মদ মুহাসিন উদ্দীন,ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক হাবিবুল্লাহ মিলন ও সুরাইয়া আক্তারসহ প্রমুখ।

সেমিনারে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে মৃত্তিকা কামাল নির্মিত “Escape” এবং “Home Away from Home” ও উজান রহমান নির্মিত ‘‘Arson, Rape”, “Brutal Murders” ডকুমেন্টারিসমূহ প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিশ^বিদ্যালয়ের ইতিহাস ও সভ্যতা বিভাগের প্রভাষক সুরাইয়া আক্তার ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here