বরিশালের হিজলা উপজেলার ছোট লক্ষ্মীপুর গ্রামে এক তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ১ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৩ বছরের দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আবু শামীম আজাদ আসামির উপস্থিতিতে রবিবার দুপুরে এই রায় ঘোষণা করেন। একই সাথে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর আসামি মান্নান ব্যাপারীকে খালাস দেয়া হয়।
দণ্ডপ্রাপ্ত মো. সাইদুল রাড়ি একই এলাকার বাসিন্দা। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় কারাগারে প্রেরণ করে পুলিশ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ২৩ এপ্রিল আসামি সাইফুল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একই এলাকায় তার বেয়াই মান্নান ব্যাপারীর বাড়িতে নিয়ে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে সাইফুল ওই তরুণীকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন।

পরে ট্রাইব্যুনালে ১০ জনের মধ্য ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বিয়ের প্রলোভনে ওই তরুণীকে ধর্ষনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক ওই রায় ঘোষণা করেন বলে জানান বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট ফয়জুল হক ফয়েজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here