অনলাইন ডেস্ক :: বরিশালের মুলাদীতে ইয়াবা দিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়লেন এক নারী। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার গাছুয়া ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামের মৃত হাচেন আলী বেপারীর স্ত্রী পেয়ারা বেগম ৮পিস ইয়াবা দিয়ে একই গ্রামের মৃত হযরত আলী বেপারীর পুত্র মিলন বেপারীকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেছেন।

পুলিশ পেয়ারা বেগমকে ইয়াবাসহ আটক করে মুলাদী থানায় নিয়ে আসে। মুলাদী থানার এসআই ইদ্রিস আলী জানান বলরামপুর গ্রামের রুহুল আমিন বয়াতির পুত্র সাদ্দাম হোসেনের সাথে জমাজমি নিয়ে মিলন বেপারীর বিরোধ চলে আসছিলো। বিরোধের জেরধরে মিলনকে ফাঁসানের জন্য সাদ্দাম হোসেন তার আত্মীয় পেয়ারা বেগমকে মোটা অঙ্কের টাকার লোভ দেখিয়ে মিলনের বাড়িতে ইয়াবা রাখার অনুরোধ করে।

শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে পেয়ারা বেগম ৮পিস ইয়াবা নিয়ে মিলনের বিছানার নিচে রাখার চেষ্টা করে। ওই সময় মিলনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী মুক্তা বেগম তাকে দেখে ফেলে ডাকচিৎকার শুরু করে। পরে পাশ্ববর্তী বাড়ির লোকজন এসে ইয়াবাসহ পেয়ারা বেগমকে আটক করে থানায় সংবাদ দিলে এসআই ইদ্রিস আলী ও এএসআই জহিরুল ইসলাম সন্ধ্যায় তাকে আটক করে।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মাদক আইনে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন। আটককৃত পেয়ারা বেগম জানান তার আত্মীয় সাদ্দাম হোসেন একটি প্যাকেট দিয়ে মিলনের বিছানার নিচে রেখে আসতে বলে। ওই প্যাকেটে কি ছিলো তা আমার জানা ছিলো না।

এ ব্যাপারে মুলাদী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাইদ আহমেদ তালুকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটককৃত পেয়ারা বেগমের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here