বরিশালের উজিরপুরে স্ত্রীর উপর স্বামীর পরিবারের অমানুষিক নির্যাতন ও ৬ মাসের গর্ভের সন্তানকে জোরপূর্বক গর্ভপাত ঘটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত নবজাতক শিশুর মা বরিশাল হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহষ্পতিবার সকালে হস্তিশুন্ড গ্রামে স্বামীর বাড়ীতে এ ঘটনা সংঘঠিত হয়। এ ঘটনায় উজিরপুর মডেল থানার এস.আই রুহুল আমিন স্বামীর বাড়ী থেকে মূমূর্ষ অবস্থায় আহতকে উদ্ধার করে বরিশাল হাসপাতালে ভর্তি করে এবং স্বামীকে আটক করে।

ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের হস্তিশুন্ড গ্রামের আজাহার আলি সিকদারের ছেলে আতিকুল ইসলাম নিরব(২৮) এর সাথে বানারীপাড়া উপজেলার সৈয়দকাঠী গ্রামের হেমায়েত ফকিরের মেয়ে শারমিন বেগম(২০) এর এক বছর পূর্বে প্রেমের সর্ম্পকের মাধ্যমে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবীতে বিভিন্ন সময় শারমিনকে শারীরিক নির্যাতন করে আসছে স্বামীর পরিবার। জানা যায় আতিকুল ইসলাম ও তার বোন পারভীন বেগম, মরিয়ম বেগম,ভাগনী ইশাত(২৫) মিলে ১০ মার্চ গর্ভের সন্তান হত্যার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। তাদের কথায় রাজী না হওয়ায় শারমিনকে বেধে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে বুধবার রাতে জোরপূর্বক গর্ভপাতের ঔষধ খাওয়ায়। পেটের ব্যাথার যন্ত্রনায় শারমিন কাতর হয়ে পড়লে ১২ মার্চ বৃহষ্পতিবার সকালে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথিমধ্যে বেলা ১১ টায় মৃত্যু সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত স্বামী আতিকুল ইসলাম এড়িয়ে যান। স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন তাদের নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে এলাকায় একাধিকবার শালিশি বৈঠক হয়েছে।

উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে আহতকে উদ্ধার করে বরিশাল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা উদঘাটন করার স্বার্থে আতিকুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here