বিভিন্ন সময়ে বরিশালে নদ-নদী থেকে আটক ৪৬ লাখ ৪০ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করেছে নৌ-পুলিশ। মঙ্গলবার (১৯ মে) সকালে কীর্তনখোলা নদীসংলগ্ন রসুলপুরের চরে আনুমানিক ১৩ কোটি ৫৮ লাখ ৫০ হাজার টাকার এসব জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন নৌ-পুলিশের বরিশালে অঞ্চলের পুলিশ সুপার কফিল উদ্দিন, পুলিশ পরিদর্শক শামসুর রহমান ও বরিশাল সদর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, করোনায় লকডাউন নিশ্চিতকরণ ও নদীতে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ নিশ্চিত করণের দায়িত্ব পালন করে নৌ পুলিশের সদস্যরা। এরই ধারাবাহিকতায় বরিশাল জেলার নৌ-পথের বিভিন্ন প্রবেশ পথে নিয়মিত টহলের পাশাপাশি প্রবেশ পথগুলোর মুখে লঞ্চে ভাসমান অবস্থায় থেকে দায়িত্ব পালন করছে নৌ পুলিশের সদস্যরা। এসময় স্বাস্থ্যবিধি ও করোনা সংশ্লিষ্ট সরকারি নির্দেশনা পালনের পাশাপাশি নিয়মিত কার্যক্রম ও অভিযান অব্যাহত রাখে নৌ পুলিশ।

বরিশালের হিজলা উপজেলার মেঘনা নদীর মোহনায় পরিদর্শক শামসুর রহমানের নেতৃত্বে এমভি সম্পা নামক লঞ্চে দায়িত্বপালনকারী সদস্যরা গত ১৫ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত ৪৬ লাখ ৪০ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করে, যা আজ পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here