বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলা জামিনে থাকা আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন বাতিলের আবেদন তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। অধিকতর শুনানিশেষে রবিবার দুপুরে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান এ নির্দেশ দেন।

মিন্নির আইনজীবী মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, গত ৮ জানুয়ারি মিন্নির জামিন বাতিলের জন্য আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ। এরপর ‘জামিন কেন বাতিল হবে না’- জানতে চেয়ে আসামিপক্ষকে কারণ দর্শাতে বলা হয়। গত ১৫ জানুয়ারি লিখিত জবাব আদালতে দাখিল করা হয়। ওই দিন জামিন বাতিল আবেদনের ওপর শুনানির জন্য ২৬ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন আদালত। শুনানির প্রথম দিনে আদালতের কাছে সময় চায় রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রপক্ষের প্রার্থনা মঞ্জুর করে ২ ফেব্রুয়ারি অধিকতর শুনানির দিন নির্ধারণ করে। নির্ধারিত দিনে রবিবার আদালতে মিন্নির জামিন বাতিলের শুনানি হয়। এতে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি ভূবন চন্দ্র, বাদীর নিয়োজিত আইনজীবী মজিবুল হক কিসলু ও মিন্নির আইনজীবী মাহবুবুল বারি আসলাম অংশ নেন।

শুনানিশেষে রবিবার দুপুরে আগামী সাত দিনের মধ্যে জামিন বাতিল আবেদনের বিষয়টি তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দাখিল করতে বরগুনা সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।

গত ৮ জানুয়ারী আদালতের কাছে সাক্ষীদের বাড়িতে গিয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ এনে মামলার জামিনে থাকা সাত নম্বর আসামি আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন বাতিলের আবেদন করেন। এতে মিন্নির বিরুদ্ধে মামলার ৬ নম্বর সাক্ষী জুয়েল বাবু ও ৭ নম্বর সাক্ষী হারুন মুসল্লির বাড়িতে মোটরসাইকেলযোগে লোকজন নিয়ে গিয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ আনে রাষ্ট্রপক্ষ।

গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন রিফাত শরীফকে। পরে তিনি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। এ হত্যা মামলায় মোট ২৪ জনকে আসামি করে আদালতে দুটি চার্জশিট দেয় পুলিশ। পূর্ণবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে একটি চার্জশিট এবং ১৪ কিশোর আসামির বিরুদ্ধে আরেকটি চার্জশিট দেওয়া হয়। পূর্ণবয়স্ক ১০ আসামির মধ্যে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ৭ নম্বর আসামি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here