বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে এখনও পর্যন্ত ৩৭৪ ম্যাচের ৪১১ ইনিংসে ব্যাটিং করেছেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম। রান করেছেন প্রায় ১২ হাজারের কাছাকাছি, হাঁকিয়েছেন ১৪ সেঞ্চুরি ও ৬৪টি ফিফটি।

 

মুশফিকুর রহীমের ব্যাট থেকে এসেছে বাংলাদেশের অনেক স্মরণীয় রান। ক্যারিয়ার শুরুর দিককার সময়ে ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে উইনিং শট কিংবা এরপর আরও অগণিত ম্যাচে খেলেছেন মনে রাখার মতো অনেক শট।

 

বিজ্ঞাপন

 

 

তবে সাবেক অধিনায়ক মুশফিকের মনের গভীরে জায়গা করে নিয়েছে মাত্র এক রানের একটি শট। সেটি কোনটি? উত্তর দিয়েছেন মুশফিক নিজেই। নিজের খেলা সেরা শটের প্রশ্নে জানিয়েছেন, প্রায় সাত বছর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করার পথে দুইশতম রানটিই তার কাছে সেরা। এই শটটি খুবই স্পেশাল মুশফিকের কাছে।

 

বৃহস্পতিবার দুপুরে সেই ডাবল সেঞ্চুরি করা ব্যাটের নিলামের ব্যাপারে বিস্তারিত জানাতে ডেইলি ক্রিকেট ফেসবুক পেজে লাইভে এসেছিলেন মুশফিক। সেখানে কথা হয়েছে নানান বিষয়ে। তখনই প্রশ্ন করা তার খেলা সেরা বা মনে রাখার মতো শটের ব্যাপারে

উত্তরে মুশফিক বলেন, ‘যদি স্মরণীয় শটের কথা বলেন, সেটা তো এক রানেরও হতে পারে! এক্ষেত্রে যেটা প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলাম, সেই সিঙ্গেলটা (দুইশ পূরণ করার)। (নুয়ান) কুলাসেকারারের বলে পয়েন্টে ঠেলে দিয়ে… আমি যদিও জানিনা ওদের অধিনায়ক কী বুঝে তখন পয়েন্ট খালি করে দিয়েছিল (হাসি)। আমি ১৯৯ রানে ব্যাট করছি কিন্তু পয়েন্ট ফিল্ডার পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। সেখান থেকেই ১ রান নিয়ে দুইশ করলাম। জীবনে যত রানই করি না কেন, এটা খুবই স্পেশাল।’

 

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘এটা  (ডাবল সেঞ্চুরি করা ব্যাট) দিয়ে তো অনেক খেলেছি। ওয়েস্ট ইন্ডিজে একটা একশ আছে। ২ ০১৩ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৯১ রান করেছিলাম। জিম্বাবুয়ের সঙ্গে ৩-৪ ফিফটি আছে, নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টেস্টে ফিফটি আছে। ভাই! আমরা তো অমন প্লেয়ার না যে একটা ব্যাটে একটা ইনিংস খেলে রেখে দেবো। আর কোন ব্যাট দিয়ে যদি ডাবল সেঞ্চুরি হয়, তার মানে ঐ ব্যাট দিয়ে যত ম্যাচ খেলা যায়. .. (হাসি)’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here